পক্ষীমানব

এক বৃষ্টির রাতে, শহরের রাস্তায় পক্ষীমানবেরা হাঁটতে বেরিয়েছে। বিন্দু পক্ষীমানব দেখার অপেক্ষায় জানালা দিয়ে মাথা বাইরে বের করে রেখেছে। পক্ষীমানবদের খবর নেই…

“তুমি আমার চশমাটা পড়ো”

খুব চাপাস্বরে বললো শুভ্র। এই ঝুম বৃষ্টির তীক্ষ্ণ শব্দের মাঝেও কথাটা বিন্দুর কান পর্যন্ত গিয়ে পৌঁছেছে। বিন্দুকে চশমাটা এগিয়ে দিলো শুভ্র। চশমা পড়ে আবারো জানালার বাইরে মাথা বের করলো সে। গলির শেষ প্রান্তের দিকে তাকিয়ে দেখলো, পক্ষীমানবেরা হ‍াঁটতে হাঁটতে চলে গেছে। এই রাস্তা দিয়েই গেছে। চশমা না পড়ায় বিন্দু দেখেনি…

বিন্দু চুপচাপ বসে আছে। শুভ্র চেয়ার ছেড়ে উঠে চায়ের কাপ হাতে নিয়ে বললো, আমি কখনো কাউকে গালি দেইনি। তুমি অনুমতি দিলে তোমাকে গালি দিবো। যদি তোমার কোনো সমস্যা না থাকে…

“অবশ্যই গালি দিবে”, বিন্দু হাসিমুখে বললো।

শুভ্র চায়ের কাপটি বিন্দুর মুখে ছু‍ঁড়ে মেরে বললো, ‘তোর মারে চুদি চোতমারানি…’

বিন্দু অবাক চোখে আকাশ দেখছে। আকাশে আজ অনেক তারা !

Comments

comments